সারাদিন চা বিক্রি রাতে অধ্যয়ন, এসএসসিতে জিপিএ ৫

| - By

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

পরিশ্রম সৌভাগ্যের প্রসূতি। সৌভাগ্য নিয়ে পৃথিবীতে কোনো মানুষের জন্ম হয় না। কর্মের মাধ্যমে তার ভাগ্য গড়ে নিতে হয়। তেমনি কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে নিজের ভাগ্য গড়ে তুলেছেন ঝিনাইদহের নয়ন। সারাদিন চা বিক্রয় করে রাতে অধ্যয়ন শেষে এসএসসিতে জিপিএ-৫ পেয়েছেন তিনি।

নয়ন পৌর এলাকার মালিপাড়া গ্রামের দরিদ্র সাহেব আলীর ছেলে।

শৈলকুপা উপজেলা ভূমি অফিসের সামনে গেলেই চোখে পড়বে ড্রেনের উপর চা বিক্রয় করছে নয়ন।    পিতার পক্ষে ছেলের লেখাপড়ার খরচ চালানো সম্ভব হচ্ছিলো না।

কিন্তু  ইচ্ছা আর অদম্য মনোবলের কারণে দরিদ্রতাকে জয় করে চায়ের দোকানে সারাদিন চা বিক্রয়ের উপার্জিত অর্থে লেখাপড়া চালিয়ে গেছে নয়ন। এই কষ্টের পরে মিলেছে সুফলও। এসএসসিতে পেয়েছেন জিপিএ-৫।

এদিকে খোঁজ নিয়ে জানা যায়,  শৈলকুপার ক্রিকেট ফুটবল মাঠেও নয়নের বিচরণ অসাধারণ, তার নেতৃত্বেই পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের ক্রিকেট দল জেলা চ্যাম্পিয়ন হয়ে বিভাগীয় পর্যায়ে রানার্সআপ হয়েছে।

অপরদিকে শৈলকুপা পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয় থেকে কারিগরি বিভাগে এসএসসি’র ২০১৮ ফলাফলে নয়ন জিপিএ-৫ পাওয়ায় তার পরিবারসহ ওই গ্রামে সবাই খুশি।

নয়ন জানায়, স্কুল শিক্ষকদের আন্তরিকতায় সবকিছু সম্ভব হয়েছে। সারাদিন চা বিক্রয় শেষে রাতের বেলায় যতটুকু সময় পেয়েছি ততটুকু সময় অধ্যয়ন করেই আমার এ সাফল্য অর্জন।

সম্প্রতি নয়নের মা মারা গেছে। নয়নের স্বপ্ন উচ্চ শিক্ষা লাভ করে ভাল চাকুরি করা। কিন্তু পরিবারের আর্থিক অনটনের কারণে এখন তার কলেজে ভর্তি হওয়াই অনিশ্চিত হয়ে পরেছে।

তবে নয়ন জানায়, লেখাপড়া চালাতে শুধু চা বিক্রি নয় সম্মানজনক যে কোন কায়িক পরিশ্রম করতে বিন্দুমাত্র দ্বিধা নেই তার।




Leave a reply